1. admin@ajkernews24bd.com : ajkernews24bd.com :
রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শরীয়তপুরে বিএনপি’র চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আশু রোগমুক্তি কামনায় যুবদলের দোয়া মাহফিল। নেশার টাকা না পেয়ে শাশুড়ীকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করলো জামাই মে দিবসে বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধ শার্শার বিভিন্ন এলাকার শিশু কিশোররা ঝুকে পড়ছে নানা ধরনের মোবাইল গেম আসক্তিতে  শরীয়তপুরে আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি সংসদের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত। আমি মেডিকেলে চান্স পেয়েছি তাই আমি ডাক্তার, তুই মেডিকেল চান্স পাসনি নাই তাই তুই পুলিশ। শরীয়তপুরে কাগদী যুব সমাজের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত। শরীয়তপুরে মিথ্যা অভিযোগের দায়ে জেল জরিমানার শিকার সাংবাদিকের বাবা। “স্নাতক” পাস ছাড়া নতুন করে কেউ সাংবাদিক তালিকাভুক্ত হতে পারবেন নাঃ-মোঃশাহ আলমগীর। সারাদেশে সর্বাত্মক লকডাউনে প্রথম দিনেই করা নজরদারীতে ডামুড্যা বাজার।

আমি মেডিকেলে চান্স পেয়েছি তাই আমি ডাক্তার, তুই মেডিকেল চান্স পাসনি নাই তাই তুই পুলিশ।

নিজস্ব প্রতিবেদক।
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ৭২ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশে গত ৪দিন ধরে চলছে কঠোর লকডাউন। বিধি নিষেধের মধ্যে ঢাকা নিউ এলিফ্যান্ট রোডে চেকপোস্টে এক মহিলা চিকিৎসকের আইডি কার্ড দেখতে চাওয়া হলে শুরু হয় কথা কাটাকাটি। এক পর্যায়ে এভাবেই চিৎকার করেছেন একজন চিকিৎসক। চেকপোস্টে তিনি পুলিশকে তার আইডি কার্ড দেখাতে পারেননি। তাকে আটকানো হলে ‘হারামির বাচ্চা’ বলেও মোবাইল কোর্টে থাকা ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ সদস্যদের গালি দিতে দেখা যায় ঐ চিকিৎসককে। ১৮ই এপ্রিল (রোববার) রাজধানীর নিউ এ্যালিফেন্ট রোডের একটি চেকপোস্টে এ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। ফেসবুকে ইতোমধ্যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে পরেছে।
ভিডিওতে দেখা গেছে, চেকপোস্টে আইডি কার্ড দেখতে চাওয়া হলে চিকিৎসক আইডি কার্ড প্রদর্শন করতে পারেন নি। বাগবিতর্কে জড়িয়ে পরেন তিনি। নিজেকে বীর মুক্তিযোদ্ধার কন্যাও দাবি করেন। তাকে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন সাংবাদিকদের কাছে। উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা ও ম্যাজিস্ট্রেট তখন বলেন, ‘আপনাকে হয়রানি করা হচ্ছে না। আপনাকে তো খারাপ কিছু বলা হয়নি। আইডি কার্ড চাওয়া হয়েছে। আপনি এ রকম ব্যবহার করছেন কেনো। আমরা তো আইনের কাজই করছি।

এক পর্যায়ে গাড়িতে উঠে পড়েন ঐ চিকিৎসক। তখন আবারও উপস্থিত ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে বাগবিতর্কে জড়িয়ে পরেন ওই চিকিৎসক। এসময় তিনি ১০০ ডাক্তারদের নিয়ে আন্দোলনের ভয়ও দেখান পুলিশ সদস্যদের। তখন সাংবাদিকদের কাছে নালিশ করেন ওই চিকিৎসক। মোবাইল ফোনে একজন প্রতিমন্ত্রীকে যুক্ত করে কথা বলার জন্য ফোনটি ধরিয়ে দেন পুলিশ সদস্যসের হাতে।

এসময় উপস্থিত একজন সাংবাদিককে ওই চিকিৎসক ডেকে বলেন,‘সাংবাদিক ভাই শুনেন, আপনারা দেখেন ডাক্তারদের সাথে কি আচরণ করতেসে এই হারামজাদা পুলিশ। ডাক্তার হয়রানি বন্ধ করতে হবে বলে কয়েকবার চিৎকারও করেন ঐ চিকিৎসক।

এসময় পুলিশ সদস্যরা বলেন, ‘আপনি আমাদের তুই তুকারি করতে পারেন না।’
তখন ঐ ডাক্তার বলে আমি মেডিকেলে চান্স পাইছি তাই আমি ডাক্তার” তুই মেডিকেলে চান্স পাসনি তাই তুই পুলিশ।
তখন পুলিশ সদস্যরা বলেন, ‘আমরা প্রশাসনের লোক। আমাদের আইডি কার্ডও সাথে আছে।’আপনার আইডি কার্ড চাওয়া হয়েছে আপনি কেনো দেখাইতে পারলেন না।আপনাকে কোন প্রকার অপমান ও হয়রানি আমরা করিনি, সুতরাং আপনি কেনো আমাদের এইভাবে তুইতুইকারি করছেন! কেনো গালি দিচ্ছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত